মঙ্গলবার, আগস্ট ৪, ২০২০
বাড়ি তালা সাতক্ষীরায় আম বাজারজাত নিয়ে শঙ্কায় ব্যবসায়ীরা

সাতক্ষীরায় আম বাজারজাত নিয়ে শঙ্কায় ব্যবসায়ীরা

নিজস্ব প্রতিনিধি: চলতি মৌসুমে সাতক্ষীরায় আমের ফলন অনেকটাই কম। করোনা পরিস্থিতিতে একদিকে যেমন ফলন কম, আবার অন্যদিকে বাজারজাতকরণের শঙ্কায়ও রয়েছেন আম ব্যবসায়ীরা। সব মিলিয়ে সাতক্ষীরার আম ব্যবসায়ীরা এবার বড় ক্ষতির সম্মুখীন হবেন এমনটা আশঙ্কা করছেন। তবে ঠিকমতো রাজধানীসহ সারাদেশে বাজারজাত করতে পারলে আর্থিক ক্ষতির হাত থেকে কিছুটা হলেও রক্ষা পাবেন এমনটা অভিমত ব্যবসায়ীদের।

সাতক্ষীরার সদর উপজেলার ধুলিয়ার গ্রামের আম ব্যবসায়ী ইদ্রিস আলী মোড়ল। ২৫ লাখ টাকার আমের বাগান রয়েছে এই ব্যবসায়ীর। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে আম বিক্রি নিয়ে শঙ্কা পড়েছেন তিনি।

আম ব্যবসায়ী ইদ্রিস আলী মোড়ল জানান, এ বছর ২৫ লাখ টাকার আম বাগান কেনা রয়েছে। খরচ বাদেও পাঁচ লাখ টাকা লাভ হবে এমন আশা ছিল। তবে করোনার কারণে এ বছর আম ঢাকাতে নিয়ে বিক্রি করতে পারবো কিনা তা নিয়েই সংশয়ে রয়েছি। এই আমের ব্যবসা ছাড়া আমাদের কোনো ব্যবসা নেই। বছর শেষে একবার আমের ব্যবসায় উপার্জিত অর্থ দিয়েই চলে আমাদের সংসার।

তিনি বলেন, প্রতি বছর গুটি আম (কাঁচা আম) বিক্রি হয় ৪-৫ লাখ টাকার। এ বছর সেটিও বিক্রি করা সম্ভব হয়নি। দোকানপাট, হাট-বাজার বন্ধ, পরিবহন সমস্যা এছাড়া আম ভাঙার শ্রমিকও সংকট। নানা কারণে এ বছর আম ব্যবসায়ীরা ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে।

তবে যদি সঠিকভাবে বাজারজাত করা যায় তবে ক্ষতির হাত থেকে কিছুটা হলেও রক্ষা পাবে ব্যবসায়ীরা। এছাড়া অসাধু অনেক ব্যবসায়ীও রয়েছেন যারা অপরিপক্ক আম ক্যামিকেল মিশিয়ে বাজারজাত করে থাকেন।

একই গ্রামের অপর আম ব্যবসায়ী আবুল কাশেম গাজী। তিনি বলেন, এ বছর আমের ফলন ভালো হয়নি। যেটুকু হয়েছে সেটুকু স্থানীয় হাট-বাজারে বিক্রি করতে হবে। গত বছর খুলনা ও ঢাকায় নিয়ে আম বিক্রি করেছিলাম। এ বছর হয়তো সেটি আর সম্ভব হবে না।

সাতক্ষীরার আমের সুনাম রয়েছে দেশ-বিদেশে। ইউরোপ, ডেনমার্ক, ইতালি, সুইডেনসহ বিভিন্ন দেশে সাতক্ষীরার আম রফতানি হয়। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে চলতি বছর বিদেশে আম রফতানির কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। আমচাষি ও ব্যবসায়ীদের দেশীয় বাজারে আম বিক্রির জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

সাতক্ষীরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খামারবাড়ি থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, জেলায় আমচাষির সংখ্যা ১৩ হাজার ১০০ জন। জেলায় চলতি মৌসুমে ৫ হাজার ২৯৯টি বাগানে ৪ হাজার ১১০ হেক্টর জমিতে আমের চাষ হয়েছে। এরমধ্যে হিমসাগর ১৫৫০ হেক্টর, ল্যাংড়া ৫৬৪ হেক্টর আম্রপালি ৮৯৯ হেক্টর জমিতে। বাকি জমিতে গোবিন্দভোগ, গোপালভোগ, লতাসহ দেশীয় বিভিন্ন প্রজাতির আম রয়েছে।

এদিকে, জেলার কলারোয়া, আশাশুনি, কালিগঞ্জসহ বিভিন্ন উপজেলায় অপরিপক্ক আম ক্যামিকেল দিয়ে পাকিয়ে বাজারজাতকরণের চেষ্টা করছেন অসাধু ব্যবসায়ীরা। প্রশাসনও অভিযান চালিয়ে সেগুলো নষ্ট করে দিচ্ছে। ইতোমধ্যে কলারোয়ায় দুই ট্রাক ক্যামিকেল মিশ্রিত অপরিপক্ক আম ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ধ্বংস করেছে। যে আমগুলো রাজধানীতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছিল।

সাতক্ষীরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের (খামারবাড়ির) উপ-পরিচালক নুরুল ইসলাম বলেন, আগামী ৩১ মে থেকে হিমসাগর, ৭ জুন ল্যাংড়া ও ১৫ জুন থেকে আম্রপালি আম ভাঙা ও বাজারজাতকরণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর আগে যদি কোনো বাগানের আম পরিপক্ক হয় তবে সেটি কৃষি কর্মকর্তাদের জানালে তারা ব্যবস্থা নেবেন।

তিনি বলেন, চলতি মৌসুমে সাতক্ষীরায় আমের ফলন কম হয়েছে। এরই মধ্যে অসাধু কিছু ব্যবসায়ী অপরিপক্ক আমে ক্যামিকেল মিশিয়ে বাজারজাতকরণের চেষ্টা করছে। প্রশাসনের সহযোগিতায় আমরা সেগুলো আটক করছি, ব্যবসায়ীদের সতর্ক করছি। উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা এ ব্যাপারে সতর্ক ও মাঠে রয়েছেন। নির্ধারিত দিনক্ষণের আগে গাছ থেকে অপরিপক্ক আম ভাঙা ও বাজারজাত করা যাবে না।

খামারবাড়ির উপ-পরিচালক নুরুল ইসলাম আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে এ বছর আম বিদেশে রফতানি হচ্ছে না। দেশীয় অভ্যন্তরীণ বাজারের চাষিদের আম বিক্রির জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে। দেশীয় বড় বড় প্রতিষ্ঠান যদি আম ক্রয় করতে চায় তবে সরকারিভাবে তাদের পরিবহন করাসহ সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। ডিপার্টমেন্টাল মার্কেলগুলোতে ব্যবসায়ীরা যদি আম দিতে পারে তাহলে ক্ষতির সম্মুখীন হবেন না আমচাষিরা।

এ বিষয়ে সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল বলেন, সাতক্ষীরায় নিরাপদ আম বাজারজাতকরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সাতক্ষীরার আমের সুনাম রয়েছে। এই সুনাম ও ঐতিহ্য ধরে রাখতে হবে। নির্ধারিত দিনের আগে গাছ থেকে আম ভাঙা যাবে না মর্মে আম ব্যবসায়ী ও চাষিদের সতর্ক করা হয়েছে। এছাড়া অপরিপক্ক আম ক্যামিকেল মিশিয়ে বাজারকরণের চেষ্টা করলেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

কলারোয়ায় চৌকিদারের পিটুনিতে একজনের মৃত্যু

কলারোয়া প্রতিনিধি : কলারোয়ায় চৌকিদারের পিটুনিতে মারাত্মক আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। নিহত ব্যক্তি কলারোয়া উপজেলার হিজলদী এলাকার জোহর আলীর পুত্র...

সুন্দরবনে মাছের পাশ বন্ধ : অনাহারে কাটছে জেলেদের জীবন

নিজস্ব প্রতিনিধি : সুন্দরবনে মাছের পাশ পারমিট বন্ধ হওয়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছে সুন্দরবন উপক‚লের হাজার হাজার জেলে পরিবার। যাদের নুন আনতে পানতা ফুরায়...

৩০৪ জনের পরীক্ষায় পজিটিভ ১০০ জনের : কালিগঞ্জে নতুন করে আইনজীবীসহ ৮ জন করোনায় আক্রান্ত

নিজস্ব প্রতিনিধি: কালিগঞ্জে আইনজীবীসহ ৮ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা...

সাতক্ষীরায় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিনিধি : ‘মাছ উৎপাদন বৃদ্ধি করি সুখী সমৃদ্ধ দেশ গড়ি’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সাতক্ষীরায় ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০২০...

Recent Comments