শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০
বাড়ি লীড নিউজ সাতক্ষীরায় আম পান ও সবজিতে ১৩৮ কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি

সাতক্ষীরায় আম পান ও সবজিতে ১৩৮ কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি

নিজস্ব প্রতিনিধি : সাতক্ষীরায় ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে কৃষিতে প্রায় ১৩৮ কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতির মধ্যে আম, পান ও সবজি। ঝড়ের পর সরেজমিনে দেখা গেছে, আম ভাঙার ভরা মৌসুমে এমন অবস্থায় চাষীদের সারা বছরের স্বপ্নসাধ ঝরে পড়া আমের মতোই মাঠিতে লুটিয়ে গেছে। আম চাষী সাতক্ষীরার কাপাষডাঙ্গা গ্রামের কাদের মিয়া (৪৯) বলেন, চার ঘন্টার ঘূর্ণিঝাড়ে ঝরে গেছে আম ঝরে গেছে স্বপ্ন। করোনার মধ্যে এবারের ঈদটাও আর ভালো যাবে না। গত বুধবার রাতের ঝড়ে তার মতো জেলার অনেক আমচাষীদের যতেœ লালিত আম গাছ গুলো সব উপড়ে পড়েছে। এখন তারা ঝরে পড়া এসব আমের কোনো ক্রেতা খুজে পাচ্ছেন না। করোনা পরিস্থিতিতে এক সাথে এতো আম কিনে কোথায় রাখবেন এমন ভাবনায়ও এলাকার ক্ষুদ্র চাষীরা আম নিতেও অনীহা দেখাচ্ছে।
সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার দিয়াড়া ইউনিয়নের গ্রামের আমচার্ষী জাকির হোসেন জানান, ভালো জাতের আম উৎপাদন করেই চলে তার সংসার। ঘূর্ণিঝড়ে তার তিন লক্ষাধিক টাকার আম ঝরে পড়েছে।
আম চাষী সদর উপজেলার তুজুলপুর গ্রামের আব্দুর রহমান জানান, বুধবার রাতের ঝড়ে গাছের আম সব ঝরে গেছে। তার ৪ লাখ টাকার আমের ক্ষতি হয়েছে। ঝরে পড়া আমের কোনো ক্রেতাও নেই। এসব আম কি করব বুঝতে পারছি না। আম বিক্রির টাকা দিয়েই তার সারা বছরের সংসারের খরচ চলে।
ঝড়ে আমের সাথে জামরুল ও লিচুর ও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
সাতক্ষীরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক (প্রশিক্ষন) কৃষিবিদ নুরুল ইসলাম বলেন, জেলায় আম চাষি রয়েছে ১৩ হাজার ১০০ জন। চলতি মৌসুমে ৫ হাজার ২৯৯টি বাগানে ৪ হাজার ১শ’১০ হেক্টর জমিতে আমের চাষ হয়। এর মধ্যে হিমসাগর এক হাজার ৫৫০ হেক্টর, ল্যাংড়া ৫৬৪ হেক্টর, আম্রপালি ৮৯৯ হেক্টর জমিতে চাষ হয়েছে। বাকি জমিতে গোবিন্দভোগ, গোপালভোগ, লতাসহ দেশীয় বিভিন্ন প্রজাতির আম রয়েছে।
জেলায় ২ হাজার ২৭ হেক্টর জমির আমের ক্ষতি হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ১৬ হাজার ২৯৬ মেট্রিক টন আমের ক্ষতি হয়েছে। যা টাকার অংকে ৬৫ কোটি ১৮ লাখ ৪০ হাজার টাকা। আমগুলো সব ঝরে পড়েছে।
এছাড়া জেলায় ৫শ’ ৪৫ হেক্টর জমিতে পান চাষ হয়। ঘূর্ণিঝড়ে ২শ’১৩ হেক্টর জমির পান সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে গেছে। যা ওজনে ১২শ’ ৭৮ মেট্রিক টন। পানে বুধবারের ঝড়ে ১০ কোটি ২২ লাখ ৪০ হাজার টাকা ক্ষতি হয়েছে।
এদিকে এবার জেলার সর্বত্রই সবজির আবাদ হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, জেলায় ৭ হাজার ২৩৫ হেক্টর জমিতে। এর মধ্যে ২ হাজার ৭২ হেক্টর জমির ৩১ মেট্রিক টন সবজি সম্পূর্ণরূপে নষ্ট হয়ে গেছে। যার বর্তমান বাজার মূল্য ৬২ কোটি ১৬ লাখ টাকা। নষ্ট হয়ে যাওয়া এসব সবজির মধ্যে রয়েছে পটল, কলা, পেঁপে, বেগুন, উচ্ছে, বরবটি, ক্ষিরাই, কুমড়া, প্যাচেঙ্গা, ঝিঙ্গেসহ নানা ধরনের সবজি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

আহবায়ক কমিটিতেই ৬ বছর পার সাতক্ষীরা জেলা যুবলীগের

আহসানুর রহমান রাজীব: তিন মাসের জন্য গঠিত সাতক্ষীরা জেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি ৬ বছর পার করেছে। দীর্ঘদিন ধরে পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় জেলা যুবলীগের...

জেলা ছাত্রলীগের কমিটি না থাকায় সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থবির

নিজস্ব প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে ৮ মাসেরও বেশি সময় আগে। এরপর থেকে যোগ্য নেতৃত্বের অভাব ও অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে...

কলারোয়ায় চৌকিদারের পিটুনিতে একজনের মৃত্যু

কলারোয়া প্রতিনিধি : কলারোয়ায় চৌকিদারের পিটুনিতে মারাত্মক আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। নিহত ব্যক্তি কলারোয়া উপজেলার হিজলদী এলাকার জোহর আলীর পুত্র...

সুন্দরবনে মাছের পাশ বন্ধ : অনাহারে কাটছে জেলেদের জীবন

নিজস্ব প্রতিনিধি : সুন্দরবনে মাছের পাশ পারমিট বন্ধ হওয়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছে সুন্দরবন উপক‚লের হাজার হাজার জেলে পরিবার। যাদের নুন আনতে পানতা ফুরায়...

Recent Comments