বুড়িগোয়ালিনী প্রতিনিধি : শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের পূর্ব দুর্গাবাটিতে এলজিইডির কার্পেটিং রাস্তা নির্মাণের জন্য ভেকু দিয়ে মাটি কাটার সুবিধার্থে রাস্তার পাশে থাকা ছোট বড় দুই হাজারেরও বেশি গাছ কেটে সাবাড় করে দিয়েছে ঠিকাদারের লোকজন।

একই সাথে রাস্তার গোড়া থেকে ভেকু দিয়ে মাটি কেটে নেওয়ার অভিযোগও উঠেছে।

সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের সদস্য ডালিম কুমার ঘরামিসহ স্থানীয়দের অভিযোগ, উপকূলীয় অঞ্চল দুর্যোগ প্রবণ। প্রাকৃতিক দুর্যোগের হাত থেকে রক্ষা পেতে গাছের ভূমিকা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। পরিবেশ বাঁচাতে গাছ আমাদেরকে অনেক সহযোগিতা করে। কিন্তু দুই হাজারের বেশি গাছ কেটে সাবাড় করে দেওয়া হয়েছে। রাস্তা নির্মাণ করতে মেশিন দিয়ে মাটি কাটার সুবিধার্থে ১৫ থেকে ২০ বছর বয়সী সব গাছ ভেকু মেশিন দিয়ে দুমড়ে-মুচড়ে ভেঙে দিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার নুরুল হক মোল্লা বলেন, আমর গাছ কাটতে যাব কেন? মাটির তোলার কারণে দুই একটা গাছের ডাল কাটতে পারে। তাই বলে ২০০০ গাছ আমরা কাটিনি। স্থানীয় লোকজন গাছগুলো কেটে নিয়েছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ভবতোষ কুমার বলেন, দীর্ঘদিন পর রাস্তাটি কার্পেটিং হচ্ছে। তবে মাটি কাটার কারণে যদি গাছ কাটা হয় তাহলে সেটা দুঃখজনক। বিষয়টি আমি স্পটে গিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেব।

এলজিইডির শ্যামনগর উপজেলা প্রকৌশলী শহীদুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি শুনেছি। যদি গাছ কাটা হয় তাহলে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আ ন ম আবুজর গিফারি বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। দ্রুত পদক্ষেপ নেব। যাতে গাছগুলো আর না কাটে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে