সাতক্ষীরা বিকাল ৫:০৫ শুক্রবার , ৩ মে ২০২৪
  • ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ১৩ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
    1. অর্থনীতি
    2. আইসিটি
    3. আন্তর্জাতিক
    4. আশাশুনি
    5. উপকূল
    6. কলারোয়া
    7. কালিগঞ্জ
    8. খুলনা
    9. খেলার খবর
    10. জাতীয়
    11. জেলার খবর
    12. জ্বালানি
    13. তালা
    14. দেবহাটা
    15. পাইকগাছা
    আজকের সর্বশেষ সবখবর

    হলুদ সাংবাদিকতা, অপসাংবাদিকতা কিংবা দায়িত্বহীন সাংবাদিকতা যেন নতুন প্রজন্মকে স্পর্শ না করে

    Editor
    মে ৩, ২০২৪ ১১:০৬ অপরাহ্ণ
    Link Copied!

    ডেস্ক রিপোর্ট: সাতক্ষীরায় বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

    শুক্রবার (৩ মে) সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ আবু আহমেদ।

    সিনিয়র সাংবাদিক শরীফুল কায়সার সুমনের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বারী, সূর্যের আলোর সম্পাদক আব্দুল ওয়ারেশ খান চৌধুরী, সাংবাদিক আবুল কাশেম, সেলিম রেজা মুকুল, কালিদাস রায়, গোলাম সরোয়ার, আমিনা বিলকিস ময়না, আহসানুর রহমান রাজিব, আসাদুজ্জামান সরদার, এসএম বিপ্লব হোসেন, হোসেন আলী প্রমুখ।

    বক্তারা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের সংবিধানে বাক স্বাধীনতার যে স্বীকৃতি দিয়েছেন সেই অধিকার আজও যথাযথভাবে বাস্তবায়ন হয়নি। সাংবাদিকতা করতে যেয়ে প্রতি পদে পদে বিড়াম্বনায় পড়তে হচ্ছে।

    বক্তারা আরো বলেন, গণমাধ্যম জনগণের আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে পারছে না।

    জেলায় সাংবাদিকতার নানা বিড়ম্বনার কথা তুলে ধরে বক্তারা বলেন, সাংবাদিকদের মধ্যে বিভাজন করে সৃষ্টি করে দুর্নীতিবাজরা দাপটের সাথে দুর্নীতি করে যাচ্ছে।

    বক্তারা যুব সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য বলেন, গণমাধ্যমের প্রধান সম্পদ হচ্ছে তার বিশ্বাসযোগ্যতা, যা বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে অর্জন করতে হয়। বিভিন্ন কারণে আমাদের দেশের গণমাধ্যম তার বিশ্বাসযোগ্যতা হারাতে বসেছে। সাংবাদিকতা পেশার জন্য এটা হুমকি স্বরূপ। কাজেই হলুদ সাংবাদিকতা, অপসাংবাদিকতা কিংবা দায়িত্বহীন সাংবাদিকতা যেন কোনোভাবেই নতুন প্রজন্মের সাংবাদিকদের স্পর্শ না করে সে ব্যাপারে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে।

    বক্তারা আরো বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালন করার সময় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অসংখ্য সাংবাদিক হত্যার শিকার হচ্ছেন। কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টস (সিপিজে)-এর তথ্যমতে, পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ২০২৩ সালে বিশ্বজুড়ে কমপক্ষে ৯৯ জন সাংবাদিক মারা গেছেন। এর মধ্যে ৭৭ জনই গাজায় ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধে জীবন হারান।

    বক্তারা পরিবেশ ও জলবায়ুগত বিপর্যয়ের মতো বিষয়গুলোর সঙ্গে মুক্ত সাংবাদিকতার সম্পর্কের দিকটি তুলে ধরে বলেন, মুক্ত সাংবাদিকতার পরিপূর্ণ চর্চা থাকলে পরিবেশ ও জলবায়ুগত অনেক বিষয়ে সাংবাদিকরা আরো ভূমিকা রাখতে পারবেন।

    এজন্য সহায়ক আইনি কাঠামো, নীতি ও প্রাতিষ্ঠানিক চর্চার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তারা।

    সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক আমিরুজ্জামান বাবু, কাজী শহিদুল হক রাজু, রফিকুল ইসলাম শাওন, শহিদুল ইসলাম, আব্দুল আলিম, ফারুক রহমান, অসিউর রহমান সোহাগ, ডিএম কামরুল, কৃষ্ণ মোহন ব্যানার্জি, গাজী ফরহাদ, আবু সাইদ, ফিরোজ হোসেন, আলি মুকতাদা হৃদয়, হাবিবুল হাসান, সেলিম হোসেন, মাজহারুল ইসলাম প্রমুখ।

    এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।